টিভি ব্রেকিংঃ
ঝিনুক টিভির পক্ষথেকে সকল দর্শকদের জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা। ঝিনুক টিভি আসছে নতুন নতুন সব আয়োজন নিয়ে। পাশেই থাকুন
চীন সেনাদের ঘাড় সোজা করে রাখার জন্য কলারে পিন ঢুকিয়ে রাখা হয়

চীন সেনাদের ঘাড় সোজা করে রাখার জন্য কলারে পিন ঢুকিয়ে রাখা হয়

শুধু অর্থনীতিতেই নয়, সামরিক দিক দিয়েও বিশ্বের অন্যতম শক্তিধর দেশ চীন। চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি বা পিএলএ বিশ্বের সর্ববৃহৎ সেনাবাহিনী। দেশ রক্ষার্থে শত্রুদের মোকাবেলায় নানা কঠিন প্রশিক্ষণের মধ্য দিয়ে চীনা সেনাদের তৈরি করা হয়। সেনাদের কিভাবে প্রশিক্ষণ নিতে হয় তা নিয়ে এক অদ্ভুত তথ্য জানা গেছে।

মাইনাস তাপমাত্রায় শরীরে বরফ ছুড়ে সহনশীলতার পরীক্ষা নেয়া, বরফের উপরে হামাগুড়ি দিয়ে প্রশিক্ষণ দেয়াসহ নানা গল্প জেনেছি। এবার জানা গেলো, জামার কলারে পিন ফুটিয়ে সোজা করা হয় চীনা সেনাদের ঘাড়! এ যেন ভয়ঙ্কর অনুশাসন!

ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকায় এমনই একটি সচিত্র প্রতিবেদন তুলে ধরা হয়েছে। বাংলাদেশ জার্নালের পাঠকদের জন্য প্রতিবেদনটি নিচে হুবহু তুলে ধরা হলো-

প্রতিটি দেশের সেনাবাহিনীতে দেহভঙ্গি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক দেহভঙ্গির জন্য প্রত্যেককেই কঠিন পরিশ্রম করতে হয়। পিঠে বোঝা নিয়ে দৌড়, ভারী রাইফেল হাতে নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা একই ভাবে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকা, এসব আমরা প্রায়ই শুনি। কিন্তু জানেন কি চীন সরকার সেনাদের ঘাড় সোজা রাখার এক অদ্ভুত উপায় বের করেছে?

১. চীনা সেনাদের জামার কলারে আলপিন গুঁজে দেয়া হয়। সামনের দিকে মাথা সোজা রেখে ঘাড় কোনও দিকে না হেলিয়ে থাকার প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। এই ছবিটি ২০১২ সালের।

২. ওই বছর বেজিংয়ে ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের জন্য প্রস্তুতি নেয়া এক চিনা প্যারামিলিটারি পুলিশের ছবি এটি।

৩. উপরের ছবিটিতে যে সেনাদের দেখা যাচ্ছে তাদের ঘাড় সোজা রাখার জন্যই পিনের সাহায্য নেয়া হয়েছিল। এই ছবিটি টুইটারে পোস্ট হওয়ার পরই বিশ্বজুড়ে সাড়া পড়ে যায়। সত্যিই কি এমন করা হয়, প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। পরে জানা যায় এই ঘটনা সত্যি। তবে পুলিশ বা সেনাবাহিনীতে প্রশিক্ষণ নেয়ার জন্য চীনে প্রত্যেককেই এই কঠিন অনুশীলনের মধ্যে দিয়ে যেতে হয় না।

৪. এটা শুধুমাত্র তাদের জন্য করা হয়, যাদের দেহ ভঙ্গিমায় গলদ রয়েছে। যারা ঘাড় সোজা রাখতে পারেন না। তাদের পোশাকের কলারে দু’দিকে একটি করে পিন লাগিয়ে দেয়া হয়।

৫. ঘাড় কোনও দিকে সামান্য হেলে পড়লেই পিন ফুটে যাবে। তাই পিনের কারণে এক রকম বাধ্য হয়ে প্রশিক্ষণরত সেনারা ঘাড় সোজা রাখবেন। এভাবে ধীরে ধীরে ঘাড় সোজা রাখতে তারা অভ্যস্ত হয়ে পড়েন।

৬. এছাড়া ঘাড় সোজা রাখার আরো একটি উপায় বের করেছেন চীন সেনারা। মাথার উপর টুপি উল্টো করে রাখা। টুপি উল্টো করে রাখলে তা পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে।

৭. টুপি ধরে রাখতে গেলে হাঁটার সময় বা প্যারেড করার সময় মাথা একেবারেই নাড়াতে পারেন না তারা। এভাবেও ঘাড় সোজা রাখতে অভ্যস্ত হয়ে পড়েন ক্রমশ।

শেয়ার করুনঃ

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020 | jhenuktv.com
Developed BY POS Digital