টিভি ব্রেকিংঃ
ঝিনুক টিভির পক্ষথেকে সকল দর্শকদের জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা। ঝিনুক টিভি আসছে নতুন নতুন সব আয়োজন নিয়ে। পাশেই থাকুন
পাবনার মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা এখন মহাব্যস্ত পার করছেন

পাবনার মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা এখন মহাব্যস্ত পার করছেন

জ্যৈষ্ঠ মাসের মৌসুমী ফলে ভরে গেছে পাবনার হাট-বাজার

এসব ফলের ব্যবসা করে ৩ শতাধিক মৌসুমী ফল ব্যবসায়ী জীবিকা নির্বাহ করছেন। তারা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন।

পাবনা শহর থেকে শুরু করে জেলার সকল উপজেলার হাট-বাজারে মৌসুমী ফলের রমরমা ব্যবসা শুরু হয়েছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে আম, কাঁঠাল, লিচুসহ মৌসুমী ফলের বেচাকেনা। মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করে সংসারে স্বচ্ছলতা ফিরিয়ে এনেছে। জ্যৈষ্ঠ মাসের শুরু থেকেই বাজারে উঠতে শুরু করে পাকা আম। এর আগে লিচুতে ভরে যায় বাজার। সাথে পেয়ারা, তরমুজ, বেল, কাঁঠাল। তবে মৌসুমী ফল ব্যবসায়ীরা আম, কাঁঠাল ও লিচুর দিকেই বেশী ঝুঁকেছেন। মৌসুম শুরুর আগেই স্থানীয় ব্যবসায়ীরা আম, কাঁঠাল ও লিচুর বাগান কেনেন। মৌসুম শুরু হলে এসব ফল বাজারে ওঠে। অনেকেই বেপারীদের আড়ত থেকে ফল কিনে ব্যবসা শুরু করেন।

৩০ মে রবিবার পাবনা সদরের টেবুনিয়ায় আসা মৌসুমী ফল ব্যবসায়ী আ.আজিজ জানালেন, অন্য সময় দিনমজুরী করতে হয়। মৌসুমী ফল নামায় এখন ফলের ব্যবসা করছি। আয়ও ভালো হচ্ছে। চাটমোহর পৌরভার ২ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আম ব্যবসায়ী মোঃ জনাব আলী বলেন, লকডাউনের কারণে বাজারে ক্রেতা কম। আর সে কারণেই বিক্রি কিছুটা কম হচ্ছে। পাইকাররাও বাইরের জেলা থেকে আসতে পারছেন না।

 

 

চাটমোহর পৌর সদরের ৪ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আম ব্যবসায়ী মনির উদ্দিন বললেন, এখন শুধু আমের ব্যবসা ভালো চলছে। আগামী ২ মাস এ ব্যবসা চলবে।আরেক ব্যবসায়ী রেজাউল করিম জানালেন, তারা জীবিকার তাগিদে ব্যবসা করেন।

 

তবে অনেক সময় আড়তের অপরিপক্ক ফল নিয়ে তারা বিপাকে পড়েন। বাজারে যাতে অপরিপক্ক আম বা কাঁঠাল না আসে সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা নেওয়া দরকার।

 

 

 

 

শেয়ার করুনঃ

Comments are closed.

© All rights reserved © 2020 | jhenuktv.com
Developed BY POS Digital